প্রত্যাহিক কাযকর্মের মধ্যে ইংরেজী শেখার সহজ উপায় | ইংরেজি শেখার টিপস

আসসালামুয়ালাইকুম, পাঠক ।আশা করছি, সবাই ভালো আছেন। আজকে আমরা কথা বলবো কীভাবে প্রত্যাহিক বিভিন্ন কাযকর্মের মাধ্যমিই  আমরা আমাদের ইংরেজিটা কে চর্চা রাখতে পারি এবং ইংরেজি দক্ষতাটাকে আরো এক ধাপ এগিয়ে নিতে পারি।  চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক। 

১. শব্দভান্ডার বাড়ানঃ

যেকোনো  ধরনের বাসার জন্যই শব্দভান্ডার বা ভোকাবুলারি জানা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। আপনার ভোকাবুলারি যত সমৃদ্ধ হবে আপনার ঐভাষায় কথা বলার দক্ষতা তত বেশি বৃদ্ধি পাবে।তাই যত পারুন ভোকাবুলারি মনে রাখার চেষ্টা করুন। আপনাকে প্রতিদিন 20-30 টা ভোকাবুলারি পড়তে হবে এমন কোন কথা নেই। আপনি প্রতিদিন নির্দিষ্ট মাত্রায় পাঁচটি করে পড়ার পরিকল্পনা করুন।  মাসের শেষে টাকা নিয়ে দাঁড়াবে 150 টা। সেটাও কিন্তু নেহাত কম নয়।  তাই একসাথে বেশি করার চেষ্টা না করে অল্প অল্প করে পড়ার চেষ্টা করুন। এতে করে আপনার পেশার কম হবে এবং শব্দগুলো বুঝতে পারবেন।  ধরে নিলাম আপনি প্রতিদিন 5 টি করে শব্দ শিখছেন । প্রতিদিন এই পাঁচটি ব্যবহার করে নতুন নতুন বাক্য গঠন করতে চেষ্টা করুন। এতে করে শব্দের সম্পূর্ণ রূপে অনুশীলনও হয়ে যাবে। তাই প্রতিদিন একসাথে বেশি শব্দ পড়াচ্ছে প্রতিদিন সামান্য পরিমাণে কিছু শব্দ করে তারপর সম্পর্কে জেনে বুঝে করাটাই সবচেয়ে ভালো এবং ইফেকটিভ।

 

২. পত্রিকা পড়ুনঃ

আপনার যখন ইংরেজির বেসিক জ্ঞান আছে।  তখন আপনার চর্চাকে চালিয়ে যাওয়ার জন্য বেস্ট অপশন হচ্ছে পত্রিকা পড়া।  পত্রিকা বলতে আমি এখানে বাংলা পত্রিকা বোঝাচ্ছি না ,  ইংরেজি পত্রিকাগুলোকে বোঝাচ্ছি।  আমাদের আমাদের দেশে বেশ কিছু জনপ্রিয় ইংরেজি পত্রিকা রয়েছে এবং সেগুলোর বাক্য গঠন কতটা কঠিন না।  আমাদের বেসিক নলেজ দিয়ে সেসব পত্রিকা পড়া সম্ভব।  ইংরেজি পত্রিকা পড়ার অভ্যাস করতে পারলে ধীরে ধীরে আপনি আপনার উন্নতি নিজেই লক্ষ্য করতে পারবেন।  বেশি না ,আপনি একমাস সময় নিয়ে পড়ুন, ফলাফল আপনি লক্ষ্য করবেন। 

 

৩. মুভি দেখাঃ

ইংরেজী শিক্ষার সবচেয়ে কার্যকরী এবং ইফেক্টিভ ওয়ে হচ্ছে মুভি দেখা। ইংলিশ মুভি গুলো দেখলে আপনার ইংরেজি শেখার ইমপ্রুভমেন্ট আপনি নিজেই দেখতে পারবেন।  মুভি গুলো দেখার সময় প্রথমদিকে হয়তো আপনার একটু কষ্ট হবে তাদের উচ্চারণ আর আমাদের উচ্চারণ অনেক পার্থক্য রয়েছে।  তাই মুভি গুলো দেখার সময় সাবটাইটেল সাথে রাখবেন। এতে করে কোন শব্দ না বুঝতে পারলেও সেটা আপনি সাবটাইটেল থেকে পড়ে সহজে বুঝে নিতে পারবেন । 

 

৪. গান শুনুনঃ

গান পছন্দ করেনা এমন ব্যক্তি খুবই কম পাওয়া যায়। এই গান কি কাজে লাগিয়েও কিন্তু আপনি আপনার ইংরেজি চর্চা কে আরো একধাপ এগিয়ে নিতে পারেন।  জিজ্ঞেস করতে পারেন কিভাবে ?  ব্যাপারটা খুবই সিম্পল।  আপনি ইংরেজি গানগুলো শোনা শুরু করুন।  প্রথম দিকে একটু কষ্ট হবে বুঝতে।  সেটার জন্য আপনাকে মুভির মতই সাবটাইটেল, রিলিক্স দেখে দেখে শুনতে হবে।  যখন ধীরে ধীরে আপনি শুনতে শুনতে অভ্যস্ত হয়ে যাবেন তখন আপনি সহজেই বুঝতে পারবেন যেখানে কি বলতে চাইছে। 

 

৫. ইংরেজি বই পড়ুনঃ

ইংরেজি বই পড়ার অভ্যাস করুন।  যে শব্দটি অর্থ বুঝতে পারছেন না সেটা অর্থ বুঝার জন্য গুগলের সহায়তা নিন।  ধীরে ধীরে যখন পড়া শুরু করবেন এবং অর্থ বুঝে শুরু করবেন তখন আপনি আপনার নিজের ভেতর পরিবর্তন টা দেখতে পাবেন।  তাই ইংরেজি পড়া অভ্যাস না থাকলে সেই অভ্যাসটা করে নিন।

৬. নিজেই নিজের সাথে কথা বলুনঃ

অনেকেই আছি আমরা চক্ষু লজ্জার ভয়ে কারো সামনে ইংরেজিতে কথা বলতে চাই না হয়তো ভুল হতে পারে সেভাবে।  চক্ষুলজ্জা বা  ভয়  এগুলো দূর করতে  আপনি নিজে নিজের সাথে কথা বলুন।  নিজে নিজের সাথে কথা বলা অনেকগুলো বই আছে।  যেমন :

 আপনি আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে নিজেই নিজের সাথে কথা বলতে পারেন। এদের আপনার যে লজ্জা পাও ভয় পেতে থাকে সেটা ধীরে ধীরে দূর হয়ে যাবে।  এছাড়াও,  আপনি চাইলে কনভারসেশন এর মত অর্থাৎ আপনি  নিজেই দুইটি ব্যক্তির ভূমিকা কাজ করবেন।  তার জন্য আপনার করতে হবে প্রথমে যেকোনো একজন ব্যক্তির আপনাকে নিতে হবে এবং সে ব্যক্তি যে কনভারসেশন কথোপকথন থাকবে সেটা আপনাকে মোবাইলে রেকর্ড করে ফেলতে হবে।  এবং দ্বিতীয় ব্যক্তির যে কাজটা হবে সেটা হচ্ছে দলের সাথে তাল মিলিয়ে কথা বলতে হবে।  এভাবে যখন নিয়মিত প্র্যাকটিস করবেন তখন আপনার ইংরেজি বলার জড়তা বা চক্ষুলজ্জা  অনেকটাই চলে যাবে।

 

৭. ডায়েরী লিখুনঃ

অনেকের মধ্যেই লেখালেখিতে অনেক অনীহা দেখা যায়।  বাস্তব জীবন ইংরেজি শিখতে হলে এর ভূমিকা কিন্তু অনেক।  আমাদের প্রত্যাহিক জীবনে অনেক ধরনের ঘটনা ঘটে থাকে।  সেগুলো আমরা একটু চিন্তা করে ইংরেজিতে কনভার্ট করে লেখার চেষ্টা করি সে ক্ষেত্রে কিন্তু আমাদের ইংরেজি শেখার অনেকটাই সহজ হয়ে যায়।  তাই  আমাদের প্রত্যেকের জীবনে বিভিন্ন ধরনের ঘটে যাওয়া নানা ঘটনাকে কেন্দ্র করে আপনি সেটা ডায়েরিতে লিপিবদ্ধ করে রাখতে পারেন।এতে করে আপনার ঘটনাটা লিপিবদ্ধ করা হলো সাথে ইংরেজি চর্চাও টা হয়ে গেল।

 

আজ এ পর্যন্তই। আশা  আশা করছি আর্টিকেলটা আপনাদের কাজে দিবে।  মনে রাখবেন,  ইংরেজি একটি কিন্তু ভাষা।  আর আমরা যদি আমাদের মাতৃভাষা সহজ সাবলীল ভাবে পড়তে পারি।  ইংরেজি কিন্তু ঠিক সে ভাবে বলতে পারবো না।  ইংরেজি আমাদের মাতৃভাষা নয়।  তাই সঠিক পরিচর্যার মাধ্যমে আপনি আপনার  ইংরেজির দক্ষতা কে বাড়িয়ে নিতে হবে।  ইংরেজি নিয়ে আরেকটা টিকরা যেখানে চাইলে সেটা পড়ে নিতে পারে। আজ এ পর্যন্তই,  ধন্যবাদ সবাইকে।

Leave a Comment