দাঁতে তীব্র ব্যথা হলে কী করবেন ? দাঁতের ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়ার  প্রাথমিক কিছু উপায়।

আসসালামু আলাইকুম, পাঠক।  আশা করছি সবাই ভালো আছেন।   টাইটেল তারপরে বুঝতে পারবেন আজকে আমরা কি নিয়ে কথা বলতে যাচ্ছি। হ্যাঁ, আজকে আমরা দাঁতের ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য প্রাথমিক কিছু ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে জানব। এই উপায়গুলোর মাধ্যমে আপনি প্রাথমিকপর্যায়ে ব্যথাটা কিছু কমাতে পারবেন।

তবে বেশি   ব্যথার ক্ষেত্রে ডাক্তার দেখানো মঙ্গল।  এগুলো শুধুমাত্র বিপদে পড়লে যেমন হয়তো খুব গভীর রাতে আপনার দাঁতে ব্যথা উঠছে তখন এর থেকে   কিছুটা মুক্তি পাওয়ার জন্য এ উপায় গুলো আপনাকে কাজে দিবে । চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক। 

১. লবণ-পানি

দাঁতে ব্যথার  কিছুটা হ্রাস করার জন্য প্রথম এবং প্রাথমিক উপায় হচ্ছে গিয়ে লবণ-পানি দিয়ে দাঁত পরিষ্কার করা। মূলত লবণাক্ত পানি প্রাকৃতিক জীবানুনাশক এতে করে দাঁতের মধ্যে আটকে থাকা খাদ্যকণা গুলো বের হতে সহায়তা করে।

তৈরি পদ্ধতি : এক গ্লাস কুসুম গরম পানিতে হাফ চা চামচ লবণ দিয়ে ভালো করে কুলি করে নিবেন।এবং এভাবে বাণীগুলোকে মুখের 30  সেকেন্ড থেকে 60 সেকেন্ড পর্যন্ত মুখে রাখুন। এভাবে কয়েকবার করতে থাকুন ব্যথা কিছুটা হ্রাস পাবে।

২. রসুন

ঘরোয়া অ্যান্টিবায়োটিক হিসেবে ঘোষণা কবে কার্যকরী। রসুন দাঁতের মধ্যে তৈরি হওয়া ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া কে ধ্বংস করে এবং ব্যথার হ্রাসে সহায়তা করে। 

কার্যপদ্ধতি : অ্যাক্টিভা দুইটি রোশনের কোয়া নিয়ে থেতলে নিয়ে সামান্য লবণ মিশিয়ে দাঁতের ব্যথার জায়গায় লাগিয়ে রাখুন। আপনি চাইলে রোশনকে চিবিয়ে খেতে পারেন সমস্যা নেই। এভাবে করলে ব্যথা কিছুটা হলেও হ্রাস পায়।

৩. অ্যালোভেরা

অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান হলো অ্যালোভেরা । এটি দাঁতের জীবন কে নষ্ট করে দেয়।  মূলত অ্যালোভেরার জেল ব্যথার জায়গায় লাগালে  কিছুটা ব্যাথা রাস পেতে পারে।

৪.লবঙ্গ

লবঙ্গ মূলত একটি মসলা জাতীয় উপাদান। এটা ঝাঁজালো ভাবটা দাঁতের ব্যথা হ্রাস করতে অনেক সহায়তা করে। মূলত লবঙ্গ তেল ব্যথা দূর করতে খুবই সহায়ক এবং এর মধ্যে ইউজেনল রয়েছে যা প্রাকৃতিক অ্যান্টিসেপটিক।

৫. তুলসি পাতা

তুলসী পাতা সংবেদনশীল মাড়ির ব্যথা কমাতে সাহায্য করে। মূলত তুলসী পাতা টি ব্যাগ তথা পিপারমিন্ট টি ব্যাগ পাওয়া যায়। 

কার্যপদ্ধতি : প্রথম একটি ব্যবহৃত পিপারমিন্ট টি ব্যাগ  নিন এবং এটিকে কিছুটা ঠান্ডা হতে দিন তবে একেবারে ঠান্ডাও না কুসুম গরম ঠান্ডা রাখবে। এরপর টি প্যাকটিকে ব্যাথা স্থানে লাগান । এছাড়াও টি প্যাকটিকে বরফ করেও ব্যবহার করতে পারেন। দাঁতের ব্যথা লাগবে বরফও খুবই কার্যকর একটি উপাদান।

৬. পেঁয়াজ

ব্যথা লাগে বসে আছি কিন্তু সহায়তা করেন। এক টুকরো কাঁচা পেঁয়াজ চিবিয়ে খেয়ে নিন। যদি বেশি ঝাল লাগে তবে দাঁতের উপর চেপে রাখলে কিছুটা আরাম পাওয়া যায়।  মূলত পেঁয়াজের ঝাঁজালো ভাবটাই ব্যথা হ্রাস করতে সহায়তা করে ।

৭. বরফ

ব্যাথা লাগবে বরফ কিন্তু খুবই কার্যকরী  কাজ করে। বিশেষ করে হাতের কাছে যদি উপরোক্ত কোনটাই না পাওয়া যায় তাহলে বরফকে কাজে লাগাতে পারেন। 

কার্যপদ্ধতি  : প্রথমে এক টুকরো বরফ কে তুলা বা কাপড়ে মুড়িয়ে দাঁতের উপর বা মাড়িতে বাজে জায়গায় ব্যথা করছে ওই জায়গায় চেপে ধরে রাখুন। এতে করে ব্যাথা অনেকটাই লাঘব পায়।

৮. লবন ও গোলমরিচ

ব্যাথা লাগবে লবণ ও গোলমরিচ এর  পেষ্ট অনেক কাজে দেয়।  পেষ্ট তৈরি করার জন্য লবণের সঙ্গে কিছু পরিমাণ গোলমরিচ নিতে হবে  । এরপর লবণ ও গোলমরিচ মিশিয়ে পেষ্ট  টি তৈরি করতে হবে। এরপর পেষ্ট টি দাঁতে লাগিয়ে রাখুন কয়েক মিনিট।

প্রাথমিক পর্যায়ে উপরোক্ত যেকোনো একটি করলেই ব্যথা হ্রাস হবে কিছুটা। তবে আমাদের দিক থেকে সাজেস্ট থাকবে  আপনি যদি দাঁতের ব্যথায় আক্রান্ত তবে যে কোন ভালো ডাক্তারের সরনাপন্ন হওয়াই ভাল। সাময়িক ব্যথা লাগার জন্য উপরোক্ত বিষয় গুলো কাজে দেবে। 

আজ এ পর্যন্তই।  আশা করছি,  আর্টিকেলটি আপনাদের কাজে দিবে।  এছাড়াও আপনাদের কোন দিকে থাকলে অবশ্য আমাদের জিজ্ঞেস করতে পারেন আমার সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো আপনাদের কিসের উত্তর দিতেন ধন্যবাদ। আমাদের সাথে থাকুন।

Leave a Comment