সেরা ১০ অডিও এডিটিং সফটওয়্যার (2021) | অডিও নিয়ে কাজ করার জন্য কোন সফটওয়্যারটি ব্যবহার করা যায় ?

আসসালামু আলাইকুম, পাঠক।  আশা করছি সবাই ভালো আছেন। আজকে আপনার সাথে কথা বলব এমন পাঁচটি অডিও সফটওয়্যার নিয়ে যা আপনারা সহজেই অডিও এডিটিং এর কাজে লাগাতে পারেন। এবং সফটওয়্যার গুলো সম্পূর্ণ ফ্রীতে পাবেন। চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক ।

১. Audacity 

 এই সম্পন্ন একটি ফ্রি ভার্সন সফটওয়্যার। Audacity   কে আপনি উইন্ডোজ ম্যাক কিংবা লিনাক্স যে কোন অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করতে পারবেন। মূলত এটি একটি ওপেনসোর্স সফটওয়্যার।

 এর  বিশেষত্বগুলো হচ্ছে

 সম্পূর্ণ আলাদা প্লাগিন সাপোর্ট

 অ্যাডভান্স এডিটিং টুলস

ইফেক্ট প্যাকেজ সুবিধা

২. Adobe Audition

Adobe Audition খুব জনপ্রিয় একটি  অডিও এডিটিং সফটওয়্যার। যা Adobe কর্তৃক পরিচালিত হয়। এর ভিতরে বিভিন্ন অ্যাডভান্স প্লাগিন,  টুলস ইত্যাদি ব্যবস্থা রয়েছে যা আপনার অডিটিং কে আরো সুবিধা মত করে তুলবে।

৩. Wavepad 

এটি একটি অসাধারন  অডিও এডিটিং সফটওয়্যার।  তবে  তবে তুলনামূলকভাবে এর ইন্টারফেস কিছুটা জটিল।  আপনি ব্যবহার করতে করতে ইন্টারভিউ সম্পর্কে ধারণা পেয়ে গেলে আপনার জন্য এটি খুবই অসাধারণ সফটওয়্যার হয়ে যাবে। কারণ এতে সকল ধরনের অডিও সাপোর্ট করেন, এছাড়াও ভিডিও ফাইল এডিট করা যায়  আর এডভান্স অডিও   এডিটিং টুলস রয়েছে।



৪. Ocenaudio

 এটি বিশেষ সুবিধা হচ্ছে এটি সকল প্লাটফর্মে সাপোর্ট করে। এছাড়াও এতে যে কোন ইফেক্ট এর ভিডিও দেখার সুবিধা রয়েছে। আরো একটি বিশেষ সুবিধা হচ্ছে আপনি লোকাল ড্রাইভ কিংবা অনলাইন প্লাটফর্ম এ ফাইল এডিট করতে পারবেন এছাড়া অন্যান্য অডিও সফটওয়্যার গুলো মতো এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্লাগিন ইফেক্ট এবং সহজ ইউজার ইন্টারফেস। অন্যান্য অন্যান্য এডিটর এর তুলনায় এতে অনেক বেশি পরিমাণ ফিল্টার রয়েছে।

৫. Free Audio Editor

পৃথিবী এডিটর অনেক সফটওয়্যার রয়েছে তবে সবগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে সবচেয়ে অসাধারন একটি সফটওয়্যার। এটি ব্যবহারের জন্য আপনার পূর্ববর্তী কোনো ধারণার প্রয়োজন নেই। এর সুবিধাগুলো হচ্ছে আকর্ষণীয় ইউজার ইন্টারফেস ইউজার ইন্টারফেস এবং সবধরনের ফরম্যাটে এক্সপোর্ট করা যায়।

৬. Darkwave Studio

পেটান এবং সিকোয়েন্স ট্রাক এডিটিং করার জন্য ডেডিকেটেড সেকশন সহকারে শব্দটি খুবই সহজ মিউজিক সফটওয়্যার। বিপুলভাবে ডি সাউন্ড কার্ড ইনপুট এর সাথে আসে এবং এখানে আরো পাবেন ইন্সট্রুমেন্ট, স্টরি ,মিক্সার  ইত্যাদি। তবে এটি শুধুমাত্র উইন্ডোজ প্লাটফর্মের জন্যই  উন্মুক্ত করা হয়েছে।

৭. Soundation

এটি একটি অসাধারণ মিউজিক ক্রিয়েটশন টুল। এ 12 টি তে রয়েছে 700 বেশি ইফেক্ট এবং লুপ।  এছাড়া অন্যান্য স্বপ্নের মতো এখানেও রয়েছে ভার্চুয়াল ইন্সট্রুমেন্ট।  তবে শুধুমাত্র একটি অসুবিধে হচ্ছে সেটা হচ্ছে কেবল সাউন্ডট্র্যাকের জন্য আপনাকে পেট বাসন্তী ব্যবহার করতে হবে।

৮.  Live 9 lite

এটি Ableton Lite সফটওয়্যার এর নিচের ধাপ এর একটি সফটওয়্যার।  তবে সুবিধা হচ্ছে Ableton Lite ব্যবহার করত আপনাকে পেট ভাবে ব্যবহার করতে হবে আর এটি আপনি পাবেন সম্পূর্ণ বিনামূল্যে।  এখানে আপনি বিল্ডিং কিছুই ইন্সট্রুমেন্ট পেয়ে যাবেন যা সম্পূর্ণ ফ্রিতে  এছাড়াও আরো পাবেন এডিট, মিক্স, রেকডিং। সবটেট শুধুমাত্র উইন্ডোজ এবং ম্যাকের জন্য উন্মুক্ত।

৯. orDrumbox

এটি একটি মূলত টিকেট সফটওয়্যার যা দ্বারা আপনি ড্রামসের ব্যবহারের সাউন্ড এডিট করতে পারবেন। এটি মূলত ড্রামস সাউন্ডকে  কেন্দ্র করে তৈরি করা হয়েছে।ফলে আপনি এখানে সাউন্ড এর সব রকমের গ্রাম পর্টাল নিয়ে আসতে পারবেন এবং এডিট করার মুহূর্তে তা আবার প্লেব্যাক করে শুনতে পারবেন। সবচেয়ে আকর্ষণীয় ব্যাপার হচ্ছে আপনাকে ইডিট এবং প্লে একটি real-time এক্সপেরিয়েন্স দিবে।  এছাড়াও অটো মিউজিক তৈরীর জন্য অর্থ কম্পোজিশন, ম্যাচিং, বেসিনের মত দারুন সব ফিচার এখানে রয়েছে।  এটি লিনাক্স উইন্ডোজ প্লাটফর্ম উন্মুক্ত।

১০. Hydrogen

এটি খুবই ইউজার ফ্রেন্ডলি একটি অডিও এডিটিং সফটওয়্যার। সফটওয়্যারটিতে আপনি ইন্সট্রুমেন্ট স্টোরিও মিক্সার ইত্যাদি সুবিধা পাবেন আপনার সাউন্ড ট্র্যাক করার জন্য। এটি সব ধরনের হয়েছে অর্থাৎ লিনাক্স ,উইন্ডোজ, ম্যাকের জন্য উন্মুক্ত ।

আজ এ পর্যন্তই আশা করছি পোস্টটি আপনাদের কাজে আসবে। এছাড়া আপনাদের কোন জিজ্ঞাসা থাকলে অবশ্যই আমাদের করতে পারেন আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো আপনার জিজ্ঞাসার উত্তর দিতেন। পোস্টে কমেন্ট করে জানিয়ে দিন পোস্টটি আপনাদের কেমন লাগলো। 

 

Leave a Comment